ধর্মের মালিক

আমার জন্ম গ্রামে হয়েছে এবং গ্রামে আমার কৈশোর কেটেছে। রাতে চাঁদ আমার সাথে থাকতো। চোখে যতটুকু দেখতাম ততটুকুই দুনিয়া অথবা পৃথিবী। ছোটদাদির বাড়ি থেকে বড়দাদির বাড়ি আরেক ক্রোশ দূর ছিল। নিজেকে রাজা ভাবতাম। নানাবাড়ি এবং ফুফুদের বাড়িতে আমার এক খুন মাফ ছিল। তারপর বাবা আমাদেরেক নিয়ে সিলেট যান। সর্বনাশ, পৃথিবীতো খালি বড় হয়! সিলেট আসার পর ঝামেলা শুরু। প্রতিদ্বন্দী বেশি এবং সবকিছুতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হয়। তারপর আসলাম লন্ডন। আসার পথে বাতাসে ভেসে আকাশ দেখেছি।
লন্ডন আসার পর বয়সের সাথে অভিজ্ঞতাও বাড়ে, আস্তেধীর বাস্তবিক হই।
অধার্মিকরা পাপ করে। ধার্মিক হতে হলে পাপমোচন করতে হয়।
ধর্মালয় অনেকের জন্য অভয়ারণ্য।
ছোট পাপ করলেও ধর্মিষ্ঠরা পাপিষ্ঠ হতে পারে না।
পৃথিবীতে অনেক দেশ এবং ধর্ম আছে। বালাংদেশের মহাবিজ্ঞরা কী মনে করেন তা আমি জানি না। উনাদের লেখা পড়ে এবং উনাদের হাবভাবে মনে হয়, পৃথিবীর সকল পাপী বাংলাদেশে। অন্যরা নিষ্পাপ শুধু মুসলমানরা পাপিষ্ঠ। ধর্মগুরুরা ধর্মালয়ে থাকে। ধর্মিষ্ঠ হওয়ার জন্য ধার্মিক ধর্মলয়ে যায়। ধার্মিকরা বিশ্বাস করি ধর্মলয়ে ধর্মের মালিক থাকেন। ধর্মগুরুরা ধর্মের মালিক নয়। সৃষ্টিকর্তা হলে ধর্মের মালিক।
মসজিদ শুধু ধর্মালয় নয় এবং সকল ইমাম, হুজুর এবং মোল্লারা ধর্মিষ্ঠ নয়।
মানুষের ভুল হয়, মারাত্মক ভুল হয়, অমার্জনীয় ভুল হয়।
নরকের আরবি জাহান্মাম। জান্নাতের বাংলা স্বর্গ।
থাক আর লিখে অন্যের চুকলি করে চুকলিখোর হতে চাই না।

ধর্মের মর্ম

আজকাল যা হচ্ছে তা নিয়ে চিন্তা করলে সন্দিহান হতে হয়। মারামারি কাটাকাটি লেগেই আছে। মুসলমানরা নাকি মানুষ হত্যা করে। অমুসলমানরা মুসলমানদেরকে নাশ করতে চায়।
এটা হল খবর।
কিন্তু বাস্তবতা কী? কেউ কি কখনো একবার চিন্তা করেছেন?
চিন্তার সময় নেই। পাতে ভাত পাওয়ার জন্য আমরা পাগলপ্রায়। ঘুম থেকে উঠে কাজে, কাজ থেকে ফিরে ঘুম।
সত্যাসত্য জানতে হলে চিন্তা করতে হবে বা হয়।
আমি যা জেনেছি তা হলো, ক্ষমতা। ক্ষমতার জন্য মানুষ মানুষ হত্যা করছে। ধর্ম হয়েছে খবরের শিরোনাম।
ধর্ম শান্তির জন্য। সত্য ধার্মিক পাপ করে না। যারা পাপ করে ওরা ধর্ম মানে না।
ইয়া আল্লাহ, শান্তি চাই। আমরা সত্যি অসহায়। একমাত্র আপনি সত্য জানেন আমরা মিথ্যার সাথে মিতালি করি।
আমাদেরকে সত্য জানার এবং বুঝার জ্ঞান দাও।
আমিন।

Blog

ব্লগ কী এবং কেন ব্লগিং করা হয়?

উত্তরের জন্য প্রথম ব্লগ শব্দের অর্থ জানতে হবে।

ব্লগ শব্দের অর্থ ইথারে খাতার পাতা। যে পাতায় দৈনিক নতুন কিছু লেখা হয়। কেউ কবিতা লেখে, কেউ মতামত প্রকাশ করে। কেউ ছবি প্রকাশ করে। লেখকরা নিজের লেখা প্রকাশ করে। মুক্তচিন্তা অথবা মুক্তমনা বলতে কিছু নেই। বাকস্বাধীনতা থাকলেও অন্যকে বকাবকি করার অধিকার কারোর নেই।
ব্লগিং শুরু করারাগে জ্ঞাতব্য শব্দ ….
ধর্মান্ধ শব্দের অর্থ স্বধর্মে অন্ধবিশ্বাসী এবং পরধর্মদ্বেষী।
ধর্মের ষাঁড় শব্দের অর্থ ধর্মের নামে উৎসর্গীকৃত মুক্ত ষাঁড়।
ধর্মাত্মা (-ত্মন্) বিণ. বি. অতিশয় ধার্মিক। ধর্মাধর্ম বি. ধর্ম ও অধর্ম, পাপ ও পুণ্য। ধর্মাধি-করণ বি. 1 বিচারালয়; 2 বিচারক। ধর্মাধি-করণিক বি. বিচারক। ধর্মাধি-কার বি. 1 বিচারে অধিকার; 2 বিচারকের পদ বা কাজ। ধর্মাধি-কারী (-রিন্) বি. বিচারক। ধর্মাধ্যক্ষ বি. ধর্মসংক্রান্ত বিষয়ের প্রধান সরকারি তত্ত্বাবধায়ক; প্রধান বিচারপতি। ধর্মানু-গত, ধর্মানু-মোদিত, ধর্মানু-যায়ী (-য়িন্) বিণ. ধর্মসংগত, ধর্মসম্মত; ন্যায়সংগত; শাস্ত্রবিহিত।
ধর্মান্তরিত বিণ. অন্য ধর্ম গ্রহণ করেছে এমন (কবি মধুসূদন দত্ত ধর্মান্তরিত হয়ে মাইকেল নাম নিয়েছিলেন)।
ধর্মারণ্য বি. তপোবন। ধর্মার্থ বি. ধর্ম ও অর্থ।
ধর্মার্থে ক্রি-বিণ. ধর্মের জন্য।
ধর্মিষ্ঠ বিণ. ধর্মের প্রতি নিষ্ঠাশীল, অত্যন্ত ধার্মিক। স্ত্রী. ধর্মিষ্ঠা।
ধর্ম লক্ষণ বি. ধার্মিকতার দশটি লক্ষণ, যথা ধৃতি ক্ষমা আত্মসংযম সততা পরিচ্ছন্নতা ইন্দ্রিয়দমন ধী বিদ্যা অক্রোধ এবং সত্যপ্রিয়তা।
শমর্মিক্ষা বি. ধর্মবিষয়ক শিক্ষা; যে-শিক্ষায় মনে ধর্মভাবের বা ধর্মজ্ঞানের উদয় হয়। শীল বিণ. ধার্মিক। সংগত বিণ. ধর্মশাস্ত্র বা নীতির সঙ্গে সংগতি আছে এমন।
ধর্মচারী (-রিন্), ধর্মাচারী (-রিন্) বিণ. ধর্মচর্যা করে এমন, ধর্মকর্মে ব্রতী, ধার্মিক।
ধর্মচিন্তা বি. ধর্মবিষয়ক চিন্তা বা ধ্যান, আধ্যাত্মিক চিন্তা। চ্যুত বিণ. ধর্ম বা সততার পথ থেকে ভ্রষ্ট। জীবন বি. ধর্মব্রতীর জীবন; সাধুর জীবন।
ধর্মজ্ঞ বিণ. ধর্মতত্ত্ব জানে এমন।

আবার ব্লগিং শুরু করেছি।

এবার আমি আমার মনোমতো ব্লগিং করব। কেউ আর আমার পোস্ট ডিলিট করতে পারবে না। প্রথম আলো অথবা বাঁধ ভাঙার আওয়াজের সঞ্চালকরা আমার অনেক পোস্ট ডিলিট করেছে। ইসলাম ধর্ম সম্বন্ধে আজেবাজে লিখে পোস্ট করলে ওরা লটকিয়ে রাখে। প্রতিবাদ করে পোস্ট করলে ওরা ডিলিট করে। রাজাকারের নামে আলিমওলামাকে গালাগালি করলে ওরা গলাগলি করে আল্লাহওয়ালাকে গালমন্দ করে। প্রতিবাদ করলে পোস্ট ডিলিট করে, ব্যান করে। এবার দেখব কে আমার পোস্ট ডিলিট করে। নীরবে অনেক সহ্য করেছি। এবার আমি তা বলব যা বাস্তবে দেখেছি‌। সত্যি অসহায়বোধ করতাম, ওরা যখন মুক্তমনা হয়ে মুক্তচিন্তার নামে মনগড়া গল্প লিখে উল্লাস করতো। এই দুনিয়ায় সত্য কিছু থেকে থাকলে তা হলো ইসলাম। নামে মানুষ মুসলমান হয় না। সত্য মুসলমান হতে হলে আল্লাহর আদেশ নিষেধ মেনে রাসূল (সঃ) কে অনুসরণ করতে হয়। মাথায় পাগড়ি বেঁধে মুসলমান হলে শিখরা তালিকার প্রথমে থাকবে। তাদের দাঁড়ি খুব লম্বা এবং পাগড়ি খুব বড়। আমি পাগড়ি বাঁধি না এবং আমার দাড়ি লম্বা নয় তবে সত্য মুসলমান হওয়া জন্য ত্যাগ সাধনা করি। কিংবদন্তি ব্লগার হতে চাই। দোয়া কাম্য।

ব্লগ সবার জন্য নয় এবং সবাই ব্লগিং করতে পারে না। ব্লগার হত হলে শিখতে আগ্রহী এবং সহনশীল হতে হয়।

মোহাম্মাদ আব্দুলহাক